Destruction of the Islamic Caliphate

Posted By on September 22, 2019


১৮৯৭ সাল ইউরোপিয়ান যারা ইহুদীর সাজে সজ্জিত থাকতো এই সব লোক ইহুদিবাদী আন্দোলনের পত্তন করেছিল। মঞ্চ এখন প্রস্তুত। গণনা এখন শুরু হয়েছে। ইহুদিদের ধর্মঘট করার জন্য। প্রায় ২০০০ বছর অপেক্ষা করার পর , এখন তারা প্রস্তুত আঘাত হানার জন্য, সেই লক্ষ্য ,যার জন্য তারা দীর্ঘকাল অপেক্ষা করেছিল। স্বর্ণযুগ ফিরিয়ে আনা। খিলাফত ধ্বংস করার জন্য অটোম্যান সম্রাজ্য ধ্বংস করা জরুরি। এবং তুমি নিশ্চয়ই ৫০০০ ইহুদি সৈন্য দিয়ে অটোম্যান সম্রাজ্য ধ্বংস করতে পারবে না!! অটোম্যান সম্রাজ্য ধ্বংস করতে তোমার বিশ্বযুদ্ধ প্রয়োজন। এটা হলো একটা অসম্ভব আবদার। এক্ষেত্রে তারা একটা ষড়যন্ত্রের পরিকল্পনা করলো। ইহুদিরা পেছনে থেকে এমনভাবে এই চক্রান্তে অংশগ্রহণ করবে যেন কোনো চিহ্ন না থাকে। ১৯১৪ সালের গ্রীষ্মে ,আক্রমণ শুরু হলো। যখন যুবরাজ ফ্রান্জ ফার্দিনান্দ সারায়েভো তে গুপ্তহত্যার শিকার হন। ১৯১৪ সালের গ্রীষ্মে ,ইউরোপের ছয়টা প্রধান শক্তিশালী দেশ , আটলান্টিক বরাবর ছিল একটা অপরিচিত ষড়যন্ত্রকারী ঘোড়া। কেউই জানে না এই ঘোড়া কতদূর দৌড়াবে, কারণ এর আগে বিশ্বের কাছে এর শক্তি সম্পর্কে কারো ধারণা ছিল না। এবং ইউরোপের ছয়টা প্রধান শক্তিশালী দেশ। তারা হলো নাম্বার ওয়ান ,রাশিয়া , ফ্রান্স ব্রিটেন জার্মানি অস্ট্রিয়া -হাঙ্গেরি এই হলো পাঁচটা -ছয় নাম্বার টা কি ? অটোমান ইসলামিক সম্রাজ্য !! এই হলো ছয়টা প্রধান শক্তিশালী দেশ। কিভাবে তুমি একটা বিশ্বযুদ্ধ টেনে আনতে পারো , যার ফলে অটোম্যান সম্রাজ্য ভেঙ্গে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে? নিশ্চয়ই একটা ভালো পরিকল্পনা করতে হবে। যখন তারা যুবরাজ ফ্রান্জ ফার্দিনান্দ কে আক্রমণ ও গুপ্ত হত্যা করলো ,তাদের পরিকল্পনায় রাশিয়া মুখ্য ভূমিকা পালনে উৎসাহিত করলো। সুতরাং অস্ট্রিয়া -হাঙ্গেরির রাশিয়ার সাথে যুদ্ধ করা ছাড়া অন্য কোনো উপায় ছিল না। কিন্তু ব্রিটেন এবং ফ্রান্স এর মধ্য একটা চুক্তি ছিল। রাশিয়ার সাথে একটা প্রতিরক্ষা চুক্তি। সুতরাং ব্রিটেন এবং ফ্রান্স কে অস্ট্রিয়া -হাঙ্গেরির বিরুদ্ধে রাশিয়ার পক্ষ নিয়ে যুদ্ধ করতে হয়েছিল । কিন্তু জার্মানি আবার অস্ট্রিয়া -হাঙ্গেরির সাথে জাতিগত বন্ধনে আবদ্ধ ছিল। সুতরাং জার্মানি এখন যুদ্ধ অংশগ্রহণ করতে বাধ্য, অস্ট্রিয়া -হাঙ্গেরির পক্ষ নিয়ে সুতরাং ইহুদিরা তাদের চক্রান্তে সফল হোলো। গুপ্তহত্যা সফল হওয়ার পরিকল্পনা যারা করেছিল, ইউরোপের প্রধান শক্তিশালী দেশগুলোকে যুদ্ধের ময়দানে এনে। এখন শুধু বাকি ,ইহুদিরা যাকে বলে ,ইউরোপের অসুস্থ মানুষ অটোম্যান ইসলামিক সম্রাজ্য ইস্তানবুল এর খলিফা ,যুদ্ধে অংশগ্রহণ করতে চেয়েছিলো না। সে জানে অটোমান সম্রাজ্যের আর্মি কতটা দুর্বল। মিলিটারি প্রযুক্তির ক্ষেত্রে। কিন্তু ইস্তানবুলের সাথে অভ্যন্তরীণ চক্রান্ত করে , অটোম্যান সম্রাজ্যকে যুদ্ধে বিশ্বযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে বাধ্য করা যেতে পারে। বসফোরাস এ রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ কে বাহানা হিসেবে ব্যবহার করা হলো। ১৯১৬ সাল। জাসাহ্সাহ কে কাজের ভার দেওয়া হলো। আরবের ব্রিটিশ গোয়েন্দা। লরেন্স অফ আরাবিয়া তাদের মধ্যে সব চেয়ে সুপরিচিত। এই ব্রিটিশ গোয়েন্দাকে আরবে পাঠানো হল, মুসলিম বেশে। তারা আরবে দুই ছদ্দবেশে উপস্থিত হলো। একজন হলো শরীফ আল হুসেইন ,যাকে নিযুক্ত করা হয়েছিল ইস্তানবুলের খলিফা দ্বারা। হেজাজ এর শরীফ হিসেবে ,মক্কা এবং মদিনাকে পরিচালনা করার জন্য মক্কা ছিল আরব বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু মদিনা ছিল তুর্কি বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে। যখন ব্রিটিশ গুপ্তচর হুসেইন এর কাছে গিয়েছিলো, তারা তাকে আকাশ কুসুম প্রস্তাব করেছিল। এবং আমরা তোমাকে স্বাধীনতা দেব ঘৃণিত অটোম্যান সম্রাজ্য থেকে। এবং আমরা তোমাকে স্বাধীন শাসক বানাবো । এবং তুমি হবে আরবের রাজা। স্মরণ রাখো ব্রিটেইন এখানে খিলাফতের কথা বলে নি। না না আমরা তোমাকে আরবের রাজাই বানাবো। এবং আমরা তোমাকে আরো কিছু উপঢৌকন দিবো। ………. বুজতেই পারছো কি মাত্র ৭ মিলিয়ন পাউন্ড ! ৭ মিলিয়ন পাউন্ড ,বিল গেটস এর বর্তমান সম্পদ এর মূল্য ৮ হাজার ১৬০ কোটি মার্কিন ডলার শরীফ হুসেইন ,আব্দুল্লাহর প্র প্রপিতামহ বিশ্বাসঘাতকতা করল হজরত মুহাম্মদ সাঃ এর সাথে। মুসলিম উম্মাহর ১৪০০ শত বছরের ইতিহাসের সাথে প্রতারণা করা হল। আল্লাহ সুবহানুতায়ালার পবিত্র এবং স্পষ্ট নির্দেশ অমান্য করলো। পবিত্র কুরআন এ, সূরা আল মায়িদাহ তে উল্লেখ আছে , যেটা অবিকল শরীফ হুসাইন করেছিল , (হে মুমিনগণ, ইহুদি ও নাসারাদেরকে তোমরা বন্ধুরূপে গ্রহণ করো না। তারা প্রকৃতপক্ষে একে অপরের বন্ধু।) সেই দিন থেকে আজ পর্যন্ত যা শরীফ হুসেইন এর বংশধররা অব্যাহত রাখলো। শরীফ হুসেইন সাত মিলিয়ন পাউন্ড গ্রহণ করলো। এবং ব্রিটেন এর সাথে সামরিক জোট এ যোগ দিলো। এবং নিজেকে স্বাধীন অটোম্যান সম্রাজ্যের খলিফা ঘোষণা করলো। যখন ইস্তানবুলের খিলাফত মক্কার নিয়ন্ত্রনহারালো , এবং মদিনা। হারামাইন এবং হজ এর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললো। তুমি কারো পায়ের নিচের জমিন ধরে টান দিয়েছো !! এখন তো মহামান্য খলিফা অবৈধ হয়ে গেলো। তার খিলাফত এখন বৈধতা হারালো। এবং বৃটিশরা গণনা করলো, যদি আমরা হারমাইন এবং হজ নিয়ন্ত্রণে আনতে পারি ইস্তানবুলের খলিফা থেকে দূরে , তখন খিলাফত এর বৈধতা ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে যাবে। যদি তুমি খিলাফত ধ্বংস করতে চাও, তোমাকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যেন ,আর কোনো ভাবেই খিলাফত পুনরুদ্ধার না করা যায়। কিভাবে তুমি সব ওলামাগনকে সাথে নিয়ে সমগ্র বিশ্বে ইসলামিক খিলাফতকে শুধু ধ্বংসই নয় , আর যেন কখনো খেলাফত পুনরুদ্ধার না করা যায় তার ও ব্যবস্থা করা ! এই টা ছিল একটা অসম্ভব ব্যাপার ! কিভাবে এটা করা যেতে পারে ? উত্তরটা হলো …… তোমাকে শুধু হারমেইন কে স্বাধীন করতে হবে না, ইস্তানবুলের খলিফার নিয়ন্ত্রণ হতে , তোমাকে ওই সব লোকদের নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে , যারা নিজেদেরকে খিলাফত এর দাবী করতে পারবে না। এবং কেউই আর কখনো খিলাফত দাবি করতে পারবে না। যতক্ষণ না পর্যন্ত এই লোকগুলো হারামাইন এর নিয়ন্ত্রণ রাখে। এবং খিলাফত কখনো পুনরুদ্ধার করতে পারবে না ,এইটা কি সহজ নয় ? এবং এই পরিকল্পনা কে সফল করতে হলে, তাদেরকে রিয়াদ এ যাত্রা করতে হবে , আব্দুল আজিজ ইবনে সৌদ এর সাথে সাক্ষাৎ করার জন্য ,ঠিক নাম টাই তো ? অবশ্যই এই টা সঠিক নাম !! কিন্তু আব্দুল আজিজ কখনোই হেজাজ নিয়ন্ত্রণ করে নাই , সুতরাং সে কখনোই ৭ মিলিয়ন পাউন্ড এর ধাক্কা (আদেশ ,হুকুম ) সামলাতে পারবে না। তাকে এর চেয়ে কিছু কম দিয়ে সন্তুষ্ট করা যাবে। সুতরাং ব্রিটিশরা তাকে প্রস্তাব করলো , যদি তুমি আমাদের সাথে একই রকম চুক্তিতে সই করো , এবং কুরআনের ঐ নির্দিষ্ট আদেশ লঙ্ঘন করো , এবং আল্লাহ সুবহানাতালা ও রাসূল (সা.) এর সাথে বিশ্বাসঘাতকতা কর এবং মুসলিম উম্মাহর সাথে , আমরা তোমাকে প্রত্যেক মাসে ৫০০০ পাউন্ড দেব। তুমি কি এই প্রস্তাবে রাজি আছো ? আব্দুল আজিজ বললো “হ্যাঁ !“ এবং ১৯১৬ সালে আব্দুল আজিজ ব্রিটেনের সাথে এই চুক্তিতে সই করলো। যেখানে ব্রিটেনের সাথে একটা সামরিক জোট গঠন করলো ব্রিটেনের আজ্ঞাবহ দাস হলো। কিন্তু ইখওয়ানরা জিজ্ঞেস করলো ,যারা ছিল আব্দুল আজিজের সামরিক জোট কিভাবে তুমি এমন চুক্তিতে সই করতে পারো ? এবং কিভাবে তুমি ব্রিটেন এর কাছ থেকে ঘুষ গ্রহণ করতে পারো? ৫০০০ পাউন্ড এক মাসে ! আব্দুল আজিজ ইবনে সৌদ বললো এইটা হলো জিজিয়া কারণ আমি তাদের নিয়ন্ত্রণ করি বিধায় ,ব্রিটিশদেরকে জিজিয়া দিতে হবে। ইখওয়ানদের চোখে ধুলো দেওয়া হয়েছে এবং তারা উত্তরটা হজম ও করলো। সুতরাং আব্দুল আজিজ কোনো রকম জবাবদিহি থেকে বেঁচে গেলো। ১৯১৯ সালের দিকে , অটোম্যান সম্রাজ্য ভেঙ্গে টুকরো টুকরো হয়ে গেলো। এবং জেনারেল আলবেনির নেতৃত্বে ব্রিটিশ সৈন্য , বহুসংখক আরব এবং পাঞ্জাবি মুসলিম , বিশ্বস্ততার সাথে যুদ্ধ করলো। তারা আক্রমণ করলো তুর্কিশ গ্যারিসন যা জেরুজালেমকে
রক্ষা করেছিল। প্রতিহত করল এবং পবিত্র ভূমিকে স্বাধীন করো। পরাজিত করো এবং পবিত্র ভূমিকে স্বাধীন করো। এইটা ছিল ইহুদিদের জন্য সবচেয়ে আনন্দদায়ক দিন। কারণ গণনা শুরু হয়ে গেছে ! স্বর্ণ যুগ ফিরে আসছে ! ১৯১৯ সালের একই সময়ে অটোম্যান সম্রাজ্য ধ্বংস হচ্ছিলো। সমস্ত রকম তুর্কির সামাজিক পদমর্যাদা হারিয়ে ফেললো। অটোম্যান সম্রাজ্যের সমস্ত আরব অংশর পতন শুরু হল। গ্রিক সেনাবাহিনী তুরস্কের প্রধান অংশ আনাতোলিয়াতে আক্রমণ শুরু করলো। এবং তুরস্কের জনগণ ভীষণ আতঙ্কগ্রস্ত হল গ্রিকরা তাদেরকে ঘৃণা করতো , গ্রীকরা ঘৃনায় পি এইচ ডি করা ছিল। সুতরাং ব্রিটিশরা একজন তুর্কিশ জেনারেল নিয়োগ দিয়েছিলো। যে তুর্কিশ জনগণ এর ত্রাণকর্তা হিসেবে আবির্ভুত হবে ? যে স্বর্গ থেকে আসছে ! যার হাত গুলো ফেরেশতাদের পাখা সদৃশ। তুর্কি জনগণকে বাঁচানোর জন্য সুতরাং গ্যালিপলি নামক জায়গায় , মুস্তফা কামাল নামে এক ব্যাক্তি গ্রিকদের পরাজিত করে পৃথিবীর শাসক রাষ্ট্র ব্রিটেনকে এবং তৎক্ষণাৎ সে সাফল্যের সিঁড়ি আরোহন করে। এবং তুর্কির ইতিহাসে সকল নায়কের সেরা নায়কে পরিণত হয়। মুস্তফা কামাল এখন শাসন ক্ষমতার একছত্র অধিপতি। সে প্রকৃতপক্ষে অটোম্যান সম্রাজ্যের শাসক এবং খলিফা হলো গৃহসজ্জার সামান্য সামগ্রী মাত্র। ১৯২০ কি ১১৯২১ সালে……. ভার্সাইলে আলাপ আলোচনা এবং অত্যন্ত জটিল চুক্তি হয়। এই ভার্সইল চুক্তি থেকে তুর্কি প্রজাতন্ত্রের উত্থান হয়। যা অটোম্যান ইসলামিক সম্রাজ্যকে লোপ করে। কিন্তু মোস্তফা কামাল বললো ,তুর্কি জনগণ খলিফাকে ভালোবাসে। যদি ইউরোপের পোপ থাকতে পারে ,কেন আমাদের পোপ থাকতে পারবে না? সুতরাং নতুন তুর্কিশ সরকার মুস্তফা কামাল সিদ্ধান্ত নিলো, খিলাফত উঠিয়ে নিবে এবং সকল রাজনৈতিক ক্ষমতা কেড়ে নিয়ে খলিফাকে পোপ এর সমান মর্যাদা দিবে ! এইটা ছিল ,১৯২২ সাল মুস্তফা কামালের জন্য সব কিছু ভালোই চলছিল। তুর্কির জনগণও খুব খুশি ছিল ,কারণ খিলাফত এখনো টিকে আছে। বিপ্লবের নেতৃত্ব তুর্কিতে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো। কারণ তুর্কি এখন ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র। ইউরোপের আদর্শ মডেল। কিন্তু ১৯২৪ সালের ,৩ মাৰ্চ হঠাৎ মুস্তফা কামালকে ,ব্রিটিশ দাবি করলো তাকে অবশ্যই খিলাফত বাতিল করতে হবে। দাবি সরাসরি ব্রিটেন থেকে এসেছিলো। এবং ১৯২৪ সালের ,৩ মাৰ্চ তুর্কি প্রজাতন্ত্র খিলাফতকে বাতিল করলো। এখন প্রশ্ন হলো ,কেন তারা এমন করলো? যখন কোনো প্রয়োজনই ছিলোনা এই রকম করার , যেখানে ধর্মনিরপেক্ষ তুর্কি প্রজাতন্ত্রের কোনো রকম হুমকি ছিল না। উত্তরটা হলো খিলাফত সম্পূর্ণ শেষ করার জন্য , ৩মার্চ,১৯২৪ উত্তরটা ভারতবর্ষে লুকিয়ে আছে। যখন খেলাফত এর ওপর আন্দোলন সংগঠিত হয়েছিল। ১৯১৬-১৭-১৮ সাল পর্যন্ত। তখন ভারতীয় ওলামাগণ , ঐ সময়ের মুসলিম সম্প্রদায় , বিশ্বে প্রভাবশালী মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে ছিল। ভারতীয় মুসলিম সম্প্রদায় নেতাদের মাধ্যমে পরিচালিত হতো। যারা ইসলাম জানতো এবং ইসলাম এর মাধ্যমে পরিচালিত ছিল। তারা ব্রিটিশদের ঔপনিবেশিক শাসন থেকে মুক্ত হতে চেয়েছিলো। যখন তারা ব্রিটিশ থেকে মুক্ত হলো, তারা পারতো ইসলামিক শাসনকে মুসলিমদের মধ্যে আবার পুনর্জীবিত করতে। শুধু এইটাই তারা চেয়েছিলো। এবং তারা বুঝতে পেরেছিলো ,ভারতের মুসলিম সম্প্রদায়কে আবার তারা সচল করতে পারবে। খিলাফত এর বিষয় নিয়ে কারণ সবাই খিলাফত পছন্দ করে। সুতরাং তারা একটা আন্দোলন প্রতিষ্ঠা করলো ,বলা হয়ে থাকে, খিলাফত আন্দোলন। যখন খিলাফত আন্দোলন শুরু হলো এবং এইটা মুসলিম জনগণকে সক্রিয় করলো , যারা ঘুমিয়ে ছিল তারা এখন সক্রিয় হয়েছিল , বিপ্লবী সংগ্রমের মাধ্যমে, ইস্তানবুলের খিলাফতকে আবার অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য হিন্দুস্থানী নেতা এইটা বুঝতে পেরেছিলো। ……….এক মিনিট অপেক্ষা কর ! মুসলিমরা যা চায় ,আমরাও তো তাই চাই ! আমরাও হিন্দু স্থানের খেলাফত চাই ,আমরাও ব্রিটিশ থেকে মুক্ত হতে চাই। এবং আমরাও হিন্দু শাসন হিন্দু সম্প্রদায়ের মধ্যে পুনরুজ্জীবিত করতে চাই। সুতরাং এখানে স্বার্থের রূপান্তর আছে। সুতরাং গান্ধী যে পরবর্তীতে মহাত্মা গান্ধী হিসেবে সুপরিচিতি , গান্ধী খেলাফত আন্দোলনে যোগ দিলো। এবং সে তাদেরকে বলল ,শুনো যা তোমরা চাও ,সেই একই জিনিস আমরাও চাই সুতরাং কেন আমরা একই বাহিনীতে যোগ দিচ্ছি না ? সুতরাং তোমরা কি আমাকে খিলাফত আন্দোলনের সাথে যুক্ত হতে দিবে ? সুতরাং তারা গান্ধীর প্রস্তাব গ্রহণ করলো এবং একটা জোটে গঠন করলো। সুতরাং ভারতবর্ষে খিলাফত আন্দোলন হিন্দু -মুসলিম জোটে পরিণত হল। সকল হুমকির চেয়ে সবচেয়ে
বিপজ্জনক ছিল,এই হিন্দু -মুসলিম জোট, যে অভিজ্ঞতা পাশ্চাত্য সভ্যতা আদৌ আচঁ করতে পারে নাই, মানবসভ্যতার সমগ্র ঔপনিবেশিক শাসনামলে। এই খেলাফত আন্দোলনের। কারণ পাশ্চত্য উদ্দেশ্য হলো , পৃথিবীর প্রত্যেক বিদ্যমান রাষ্ট্র গঠনতন্ত্রকে ধ্বংস করা। এবং তার পরিবর্তে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করা। প্রকৃতপক্ষে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রব্যাবস্থা আনা যেতে পারে , লীগ অব নেশন এর অধীনে পকৃতপক্ষে ইউনাইটেড নেশনস। এইটাই হবে সমস্ত কার্যকলাপের রাজনৈতিক বিশ্বায়ন, ১৯২০ থেকে ১৯২৪ সাল পর্যন্ত ,খেলাফত আন্দোলন আশঙ্কাজনক হরে এগিয়ে চললো। ১৯২৪ সালে ব্রিটিশরা অঙ্ক কষলো আমাদেরকে অবশ্যই খেলাফত আন্দোলন থেকে মুক্ত হতে হবে , এখন ব্রিটিশদের একটাই লক্ষ্য খিলাফত বিলুপ্ত করা। সুতরাং তারা মুস্তফা কামাল কে চাপ প্রয়োগ করতে লাগলো। যত শীঘ্র খিলাফত লুপ্ত হলো , ভারতবর্ষে খিলাফত আন্দোলন তার কর্মশক্তি হারিয়ে ফেললো। যখন খিলাফত লুপ্ত হল শরীফ আল হুসেইন বুঝতে পারলো সে বড় বিপদের মধ্যে আছে। যতক্ষণ পর্যন্ত ইস্তানবুলে খলিফা ছিল ,ততক্ষন পর্যন্ত ব্রিটিশদের তার দরকার ছিল। কিন্তু এখন খিলাফত টুকরো টুকরো হয়ে গেছে ,লুপ্ত হয়েছে , এখন শরীফ আল হুসেইন পরিকল্পনা বুঝতে পারলো , ওহ আমার প্রভু ! তারা অবশ্যই আব্দুল আজিজকে এখন আমার মাথা কাটতে পাঠাবে। সুতরাং ৭ ই মার্চ ,১৯৯৪ সালের চার দিন পর , শরীফ আল হুসেইন সিদ্ধান্ত নিয়ে , নিজেকে খলিফা হিসেবে দাবি করলো ! যখন তুমি ব্রিটেনের আশ্রিত রাষ্ট্র তখন তুমি এই রকম কাজ করতে পারো না। তোমাকে প্রথম ব্রিটিশ সরকারের কাছে অনুমতির জন্য আবেদন করতে হবে। খলিফা হওয়ার জন্য খলিফা হওয়ার জন্য । কিন্তু তা সে করেনি ! যখন শরীফ আল হুসেইন নিজেই খিলাফত এর ঘোষণা দিলো , ১৯২৪ সালের ৭ই মার্চ ,ব্রিটেন আব্দুল আজিজকে সবুজ সংকেত দিলো। আক্রমণ কর ! মাত্র ছয় মাসের মাথায় আব্দুল আজিজের বাহিনী মক্কা জয় করলো। শরীফ হুসেইন তখন তল্পিতল্পা গুটিয়ে অনেক দূরে চলে গেলো। সুতরাং মক্কা এখন আব্দুল আজিজ ইবনে সৌদ এর নিয়ন্ত্রণে প্রকৃতপক্ষে মদিনাও ১৯২৪ সালের এপ্রিলে আল আজহার ইউনিভার্সিটি প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছিলো , তুর্কির খিলাফত এর পতন এর জন্য তারা কি করেছিল? আল আজহার ইউনিভার্সিটি ঘোষণা করলো খিলাফত এর বিলুপ্তি হলো বিদায়াত এবং হারাম। সুতরাং আমাদেরকে অবশ্যই প্রতিক্রিয়া দেখতে হবে। প্রতিক্রিয়া দেখতে হবে সম্মেলনের মাধ্যমে ! যেখানে একজন নতুন খলিফাকে নিয়োগ দেয়া হবে। যে-মুহূর্তে আল আজহার এই ঘোষণা প্রকাশ করলো , ব্রিটেনের উদ্বেগ ছিল দেখার মতো। তারাও পাল্টা কৌশলের পরিকল্পনা করলো। আল আজহার বিশ্ব বিদ্যালয়ের উদ্যোগ দেখে। ইজিপ্ট কোনো স্বাধীন দেশ নয়। ইজিপ্ট স্বাধীন হতে পারে এবং ব্রিটেন এর উচিত তার আগেই ঈজিপ্টকে নিয়ন্ত্রণ করা। দুই বছর ধরে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে পারলো না! দুই বছর ! ব্রিটিশদের প্রবল চাপের মুখে। অবশেষে ১৯২৬ সালের জুন -জুলাই তে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো। কিন্তু ব্রিটেন পাল্টা কৌশল ব্যবহার করলো। তারা আবদুল আজিজ ইবনে সৌদকে মক্কায় সম্মেলন করার জন্য বলল। মক্কার ইসলামী সম্মেলন। হজ মৌসুমে ১৯২৬ সালের মে মাসে। তখন ব্রিটেন ,রাশিয়া ,ফ্রান্স এবং চায়না ইউরোপের সকল শক্তিশালী রাষ্ট্র ,কাজে নেমে পড়ল ! ইসলামিক বিশ্বে খুব বড় ধরণের আক্রমণ ! এইটা নিশ্চিত করতে যে,কায়রো সম্মেলন কখনোই সফল হবে না। মক্কার কনফারেন্সে সকল মুসলিমগণ একত্রিত হবে। এবং তারা সফল হল। কায়রো সম্মেলন আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা আয়োজন করা হল। আরবদের জন্য একটা অপরিহার্য সম্মেলন হিসেবে বিবেচিত হয়েছিল। হাতে গোনা কিছু নন -আরবীয় উপস্থিত ছিল। সম্মেলন শুরু হল। সম্মেলন থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো খিলাফত হলো ইসলামের অপরিহার্য অংশ। খিলাফতকে লুপ্ত করা হল বিদায়াত এবং হারাম। খিলাফত অবশ্যই পুনর্জীবিত করতে হবে। সুতরাং তোমার বাড়ি যাও এবং এক বছর পর আবার ফিরে আসো। এইটাই সিদ্ধান্ত ছিল ,আমরা জানি না কিভাবে এইটার সমাধান করা যায় ? কিন্তু মক্কায় সবচেয়ে সফল প্রতিনিধি ছিল। কারণ ব্রিটেন মক্কার সাথে কাজ করতে আগ্রহী ছিল। কনফারেন্সে সবাই সমবেত হলো। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে ওহাবী আন্দোলনের জন্য যেটা ছিল একটা ধর্মীয় আন্দোলন। ঘোষণা করেছিল তারা আদি ইসলামকে ফিরিয়ে আনবে। ওই সব অতিরিক্ত ব্যাপার ইসলাম থেকে অপসারণ করবে যা বিদায়াত রূপে যুক্ত হয়েছে ইসলামে। এবং সকল রকম শিরকের উদ্ভাবন করে। এইটা ই হলো প্রকৃত ধর্ম। খুবই ভালো ,কিন্তু তুমি কিভাবে পারো খিলাফত এর মতো ব্যাপার কে এড়িয়ে গিয়ে ইসলামকে এভাবে উপস্থাপন করতে ? সম্মেলন এর এজেন্ডায় তা উল্লেখ না করে? বরঞ্চ আবদুল আজিজ ইবনে সৌদ স্বয়ং নিজে থেকে দুই বার সম্মেলনের ডাক দিলো। আব্দুল আজিজ বললো তাকে সম্মেলন আল মালিক হিসেবে পরিচয় দিতে। হিজাজ এ তার শাসনকে অবশ্যই স্বীকৃতি দিতে হবে। সম্মেলনে মহামান্য বাদশার দাবি শুনলো। উভয় বার ই সম্মেলনে এ বিষয় নিয়ে আলাপ আলোচনা হলো। আমরা কি হিজাজে সৌদি-ওহাবী শাসনকে সমর্থন করবো ? ভারতীয় মুসলিম প্রতিনিধলের নেতা প্রথমেই এ বিষয়ে আলোচনা করার জন্য উদগ্রীব হলো। যে প্রথম কথা বলেছিলো ,তার নাম হলো মাওলানা মুহাম্মদ আলী জওহর। সে উঠে দাঁড়ালো ,এবং বাদশাহকে বললো ,বের হয়ে যাও ! আমরা কখনোই তা করবো না। যখন ভারতীয় মুসলিম প্রতিনিধিদলের নেতা , বাদশাহ সৌদের সৌদি -ওহাবী নেতৃত্বের দাবিকে স্পষ্টভাবে প্রত্যাখ্যান করলো সার্বভৌমত্ব এবং হেজাজ এর নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে বাকি প্রতিনিধিদলগণ “টু “শব্দটি পর্যন্ত করতে পারলো না ওই ব্যাক্তির এই জোরালো দাবিকে ইসলামকে পরিচয় দেয় , যারা ইসলামকে জানে এবং ইসলামের মধ্যে বেঁচে থাকে। সুতরাং কনফারেন্স শেষ হলো । হেজাজের ওপর সউদী -ওহাবী শাসনের কোনো রকম সমর্থন ছাড়াই। তারা সিদ্ধান্ত নিলো প্রত্যেক বছর সম্মেলন করবে। ওই সময়ের পর আর কখনোই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় নি। ইসলামী বিশ্বর কাছে এই ছিল ওই সময়ের প্রতিক্রিয়া। খিলাফত বিলুপ্তির ব্যাপারে।

Posted by Lewis Heart

This article has 100 comments

  1. Just recently youtube announced their updated policy on channels. And this channel is demonetized and downsized as a result. But we are constantly struggling with our production to output the best educational videos on Islamic eschatology that helps eveyone understand things better. The revenue we generated from this was used entirely to support the production. Now this project is at a stake. We request our viewers to visit our patreon page and support us. Which will mobilize the production once again and our contents will always be free for all of our viewers.

    Our patreon page: https://patreon.com/Eschatology

    Reply
  2. gallepi the movie with mel gibson- the british purposly ordered their own and austrailian troups to run into a wall of bullets!

    Reply
  3. We want the caliphat back. We as a muslim should fight back to get our caliphat back. But now a days you have to many hypocrit muslim . That who give Islam a bad name they keep droping the dirt in the name of islam. Is time they clean this dirt they created.

    Reply
  4. You immediately started with a falsehood when saying how WW1 started:
    Austria never declsred war on Russia.
    Austria declared war on Serbia, after the serbian regime denied an ultimatum to extradite the killer of the crown prince.
    Russia backed Serbia, since Serbia was a satellite state of Russia.

    Germany was allied to Austria, so they honored this alliance and entered the war.
    The french sided with the russians, because they were pissed off that the germans humiliated them in 1871 and they were allied
    Britain only entered the war when Germany broke the neutrality of belgium by circumventing he marginot line of France and trying to attack through belgium, whose independence was guaranteed by GB.
    GB has broken their non-aggression agreement with germany (from Bismarck's diplomacy decades before the war), since the independence of belgium was never under attack, so they no right to declare war.
    The americans stomped in at the last minute as usual, but made no difference, since they had no clue about modern warfare and were running around like headless chicken getting gassed and trapped in the trenches and rolled over by tanks, so they were irrelevant.
    Italy was initially allied with Germany, but switched sides since they usually do not abide by their word in war situations and try to weasel themselves out.

    Reply
  5. Muslims Christians are smarter than you guys? They were able to abolish the Khalifa without a single bullet?, this is your beautiful Islam? They were able to abolish the caliphate with money? This is your beautiful Islam?

    Reply
  6. yo islamfaggot, an ulemma is not a scholar but a fanatic
    and your first 6 minutes are already filled with % more lies than your Quran, the book for people with less than 20 IQ
    islam is a very poor shithole xD

    but dear dirt-muslims, pls continue praying for your sinner muhammad, the dumbest most egocentral person to ever walk in your sand desert of nothing

    i guess, when you dont deliver anything to the world you can be proud of, may aswell lie to yourselfs right? #themuslimway

    Reply
  7. Waste of time and intelligence. Illogical and propaganda. Don't misguide Muslims, they also have right to think. They also have right to independence from Islam. If today your propaganda worked then all the Muslim community will be backward and illiterate forever. There will be no chance of independence of Muslim from Islam.

    Reply
  8. How dare you rewrite history to favour Islam and discredit the Jews, how dare you!!!!! ISLAM IS FALSE, I DARE YOU TO CHALLENGE 'CHRISTIAN PRINCE' ON YOUTUBE. The Arab Islamic empire destroyed civilizations, enslaved/castrated Northern Africa and other part of the world. Read your history

    Reply
  9. If the Ottoman empire had not entered the first world War, on the side of Germany and Austria Hungary because of Enver Pasha and the pro German faction they would not have lost and the Caliphate would have probably survived. The Ottomans made a bad decision and paid the price. The British had even promised to respect the integrity of the Ottoman Empire if they remained neutral in any coming war.

    Reply
  10. This is not an accurate representation of the outbreak of the first world war. Read any history book. The Ottomans sided with Germany and Austria Hungary and deserved what they got. They were given the option to remain neutral and decided not to.

    Reply
  11. There will never be another Caliphate the Islamic world with a few exceptions is falling further and further behind the rest of the world. In fifty years China has become a superpower but the Islamic world has generally gone backwards.

    Reply
  12. Most of the land of the former Caliphate was stolen from Christians. Muslims were originally confined to the Arabian peninsula, after the death of Muhamad they begin to attack the surrounding lands and peoples and conquered a huge empire. So Muslims should no complain about tiny Israel being an illegal imposition, because what they did was actually worse.

    Reply
  13. Those betrayal of Islam and Muslim mukmin from Adam as to the last person born before the qiyamah. Those Kuffar Donkeys will answers to all muslims before Allah SWT at Mashar. We demand those ibn Aziz and Sharif and all betrayal be burnt in Jahanam besides all kuffars eternity. The sins can never be forgiven.

    Reply
  14. Our ancestors fought against those capitalist for more than thousand years , and they will keep fighting against all those enslavement groups ,very soon earth will be red, communism is future .

    Reply
  15. What has become of Muslims of Indian Subcontinent…they had to pay very dearly for trying to screw Zionist/British plans…in next 20 years they were sliced & diced and reduced to tattered things who are looked down by entire Ummat today…really feel bad for them.

    Reply
  16. Alot of respect to you, but the Ottoman Empire (Turks) oppressed the Arabs for hundreds of years, in Syria, Iraq, Lebanon etc… The Turks are also known to be fake Muslims, who will oppress the Arabs. This is even mentioned in the Koraan al Karim. The Turks is damned. He has oppressed the Muslim world for the sake of power….

    Reply
  17. God promised in JEREMIAH 31:8,HE WILL BRING JEWISH PEOPLE FROM THE NORTH (EUROPE) back to their land of Israel
    "Then I will reply, 'I will bring them back from the land of the north. I will gather them in from the distant parts of the earth"

    Reply
  18. If after few Decades, SYRIAN MIGRANTS in Europe return to Syria, should we call them Zionist Europeans returning to Arabia? Jews returned to their rightful land in the same manner After being in Diaspora for so long.

    Reply
  19. Islam is more of political movement than a religious movement. Only Quran and Mohammad binds them together and since it is more of political movement, violence is the method adopted to sort out the differences and became integral part of Islam.

    Reply
  20. Thanks for the info dude. Just learnt more bout your barbaric religion. Muhammed wasn't different from Joseph stallon and Hitler, they just live in different generations.

    Reply
  21. Did he betray or he did whatever Muslim does. Look at the middle East and Africa the rulers are thieves and rubbers. What did Islam bring to the world. Where would the world be if there's no Christians and Jew's. The gullible crowd you preaching to are any of them know the history you talking about or they just like statues sitting there listening to you and taking anything you say. The Quran says don't ask or you would loose faith is that's why the middle East and Africa way behind in the world. The president's of the Muslim countries how much did they rob in the name of Islam Brotherhood. How about you how much are rubbing the audience and others.

    Reply
  22. Jews has only 2 percent of land compared to the Muslim in middle east let them live with peace . Better think about Iraq , Iran , Lebanon , Syria how make these country a better place . If you guys got Israel then it will also become like Syria .

    Reply
  23. Why cant abrahamic religion just go away. The waist of time, money, political unrest, wars and global distress surly an commonsense and intelligent person can see the stupidity. Spirituality is irrelevant and the destruction of human decency in the name of god. Why bother?

    Reply
  24. all arab so called nations were created by british,french, american.. all there leaders are puppets of the west put there to torture ,kill its own citizens,no arab nation to date represent there citizens also no arab nation ever choses its leader, all are barbaric tyrants,, they make mocary off iSLAM… all arab leaders should be hanged starting with the head snake saudi.. pure evil bustards they are…. not one off my writing is false, its based on facts….

    Reply
  25. May be… Islamic moon and Kaba god is too weak to keep the Caliphate in the world . Islamic kings were easily handled by the British just like a baby being handed . We need to analyze things in other perspective too. isn't ?

    Reply
  26. Is wasn’t that difficult to bring down the the whole Caliphate offer them little bread and water than all comes crashing down the pot whole.

    Reply
  27. keep barking, your petrol is just petering and watch when we achieve nuclear fusion, no body is going to give shit to Muslim nations. Secularism is an ideology of love for humanity and religion is an ideology of hate for non believing humans.
    Why you people hate jews who were persecuted by medieval Christians and Muslims and by demons like Hitler. They constitute less the 1% of world population and you people hate them for what? Your loving god hates them, what kind of his love is.

    Reply
  28. Watch "Christian Prince" videos on YouTube, you cowards… If you dare call him and debate with him and get out of this cult..
    Also watch Apostate prophet

    Reply
  29. Hei muslim !!! Can you all told the history with the truth ????? Are you muslim claim that Jerusalem belongs to muslim land ???? Who is first person who build Israel ???? is that muslim who build Israel for first time ???? Shame on you muslim like your false prophet🤬🤬🤬🤬🤬🐎🐎🐎🐎🐎🐎🐎

    Reply
  30. For all the filth and violence that you have done to the Indian subcontinent and Hindus in specific, your chilapha or whatever the fuck that is called should have been ravaged and murdered en mass to oblivion by the british or nuked to stone age by America. You will pay completely for you sins against humanity with interest.

    The entire islamic world is responsible for the damage done to my civilization and my country. You are pussies at war right now and are already defeated beyond any doubt. The time will come for your annihilation. The whole world will rejoice that day for eliminating the virus of the humanity.

    Reply
  31. I believe Austria attacked Serbia, and Russia joined because it was garunteeing Serbia's independence. Which then forced Germany to attack Russia in aid of Austria-hungary. Which then forced the French and British to declare war on Germany.

    Reply
  32. Islam is satanic
    Reason use your head folks.
    And if you are offended by me saying Islam is devilish
    You can come and behead me

    Reply
  33. And muslim of India were able to carve a state for muslims which was called Pakistan against the wishes of Hindus Jews and Christians ..this same country Pakistan with ghazwa e hind will pave way to khilafat once again …InshaAllah.. Pakistan Army will support Imam Medhi A.S and Hazrat ISA A.S after the war with india..InshaAllah

    Reply
  34. I love that it starts with the Zionists and ends up with Islamic Nations fighting for power and control.

    Where's the connection???

    Reply
  35. Why are you preaching sectarianism and hatred ?
    Why do we need a Kaliphate or a popedom? Has Allah not given you a functioning brain to distinguish good and bad ?
    Can’t we live as human beings first?
    These theologies and political ideologies serve only a few lives like yourself and the power hungry warlords Not us the common man . We are the majority and suffer the majority of your divisive ideas.
    May Allah put some sense and love in your heart and mind .

    Reply
  36. @Eschatology.. Asalamu Alaikum Members of Eschatology, May Ya-Muhaymin protect you and Al-Hadi guide you well..
    And I pray that Allah accepts your Niyah and Amal.. On the Day of Judgement. Ameen
    Can I get in touch with Mu'allim Shiekh Imran Hussain.. I would want to give some inputs about the events regarding Akhir-u-Zaman. I believe and have faith in Allah's guidance, I think with Allah's guidence I understand somethings that he should know.
    I don't know the real words to express what I want to say.
    And I am sorry if I have not been able to put my point through in better manner, I am just a student, and I can be wrong.
    If there is any possibility So please do let me know!
    I pray to Allah to make my ears hear "Teachers voice face to face someday" .
    May Allah bless such real Mu'allims.
    Allah Hu Akbar.
    Allah Hu Ma'anna .

    Reply
  37. Seems like the whole Muslim history presented here is too simplistic and a series of conspiracy theories, without proof or verification. A big fantasy full of half truths and lies.

    Reply
  38. Haha…..What a joke…..The video maker forget that. Every empire rise and falls. What a baised video. Tell people how mighty British, france and Russian empire falls. Don't be hypocritical…. All empires falls.

    Reply
  39. First: frenz was killed by serbs and austria declared war on serbia
    Second:Turks were really weak country(debatble
    And third: If muhhamed were really a prophet he wouldnt say bad things about christians and jews because as we know jews are special people because they were first to believe in one god

    Reply
  40. His statement that the British planned to get rid of the Khilafat Movement in India in 1924 by abolishing the Ottoman Khilafat is not historically accurate. The Khilafat movement was started to prevent the British from humiliating the Khalifah and stripping him of his powers, eventually leading to the collapse of the Khilafat and the dismemberment of the Ottoman sultanate. The Khilafat Movement was just a part of the great contributions of Indian Muslims to the Ottoman Khilafat starting from as early as the 1840s. In 1877, the great Indian scholar, Maulana Qasim Nanawtawi of Deoband passed a fatwa to support the Ottomans who were then being invaded by the Russians. After him came many great stalwarts, Allama Shibli, Maulana Abdul Bari, Mohammed Ali Jauhar, Maulana Azad, and so on, who devoted their lives for the cause of preserving the last symbol of Muslim honour. In December 1912, a medical mission fully sponsored by Indian Muslims was sent to serve the Ottoman troops on the Balkan front.The Khilafat movement was a culmination of all these efforts, and a precursor to the Indian independence movement as well. But, a combination of factors brought about the downfall of the Khilafat, at the hands of the Turks themselves. This disheartened the Indian Muslim no end. The rest, as they say, is history. But, there are great lessons to be learned and strategies devised based on the events of the past. On the positive front, the Khilafat movement threw up great statesmen who mobilized the masses of this impoverished country like never before. We, too, need a cause today to repeat the same. While, assiduously, avoiding the pitfalls.

    Reply
  41. Gandhi wasn't the leader of Hindus!!
    For god sake. He wished to take every community and person together as a nation. But sadly people were too small minded to understand what he wished for. Great explaination though.

    Reply
  42. Ya Allah! I m crying! How could the arab dirty betray the Islam? The Bengal Muslims tried their best to keep the Caliphate alive but arabs and kemalists betrayed

    Reply
  43. Destruction of the Kaliapha is not a tall order. It actually happened after 1918. Restoring it is tall tall order after the invention of the internet. Almost the whole civilized world know what the Kaliapha is all about.

    Reply
  44. İnşaAllah we will bring back the Caliphate one day. We just need to be brothers and sisters as the quran says. Selamun aleykum from Turkey to all Ummah

    Reply
  45. @eschatology could you kindly reveal your source? the source of this knowledge. any book or paper or something please? i need it for educational purpose

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *